এবার টুপি পরায় মুসলিম কিশোরকে মারধর

ভারতের ঝাড়খণ্ডে ১৮ ঘণ্টা নির্যাতন করে তাবারেজ নামের এক মুসলিম যুবককে হত্যা করা হয়েছে। জয় শ্রীরাম বলানোর নামে উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের সন্ত্রাসের সেই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী মোদি জানিয়েছেন, ‘ঝাড়খণ্ডের তাবারেজ হত্যাকাণ্ড তাকে ব্যথিত করেছে। এই ধরনের ঘটনা সহ্য করা হবে না’। কিন্তু, তাতে কী! কোনোকিছুতেই যেন থামানো যাচ্ছে না ভারতে উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের মুসলিম নির্যাতন।
উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ফের ঘটল একই ঘটনা। রাস্তায় টুপি পরে যাওয়ার অপরাধে জোর করে জয় শ্রীরাম বলানোর চেষ্টা করা হল এক মুসলিম কিশোরকে। বলতে রাজি না হওয়ায় করা বেধড়ক মারধর হয়েছে।
মূল ঘটনাটি শুক্রবার রাতের। নামাজ শেষে রাতে বাড়ি ফিরছিল কানপুরের বারা এলাকার বাসিন্দা ১৬ বছরের মুহাম্মদ তাজ। কিদওয়াইনগরের মসজিদ থেকে বাড়ি ফেরার সময় টুপি মাথায় ছিল ওই কিশোরের।
রাস্তায় কয়েকজন যুবক এক জায়গায় জটলা করে দাঁড়িয়েছিল। সেই জটলা পেরিয়ে আসার কিছুক্ষণ পর পিছন থেকে বাইকে করে এসে তাজকে ঘিরে ধরে জনা কয়েক যুবক।
স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা সতীশ কুমার সিং বলেন, ৩-৪ জন অজ্ঞাত পরিচয় যুবক তাজকে যখন আটকায় তখন সে প্রায় বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিল। মাত্র কয়েকশো মিটার দূরেই ছিল তার বাড়ি। কিন্তু, সেখানেই ঘটে এই ঘৃণ্য ঘটনা।
প্রথমে দুষ্কৃতীরা তাজকে তার টুপি পরা নিয়ে ধমকায়। তারা বলে, এই এলাকায় টুপি পরে হাঁটা নিষিদ্ধ। তারপরই খুলে দেওয়া হয় তার টুপি। দুষ্কৃতীরা তাজকে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিতে বলে। কিন্তু, ইসলাম ধর্মাবলম্বী তাজ তা বলতে অস্বীকার করে। তারপরই তাকে মাটিতে ফেলে পেটানো হয় বলে অভিযোগ।
তাজ জানিয়েছে, আক্রান্ত হওয়ার পর চিৎকার করেছিলেন সাহায্যের জন্য। কিন্তু, কোনো পথচারী তার সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেনি। পরে কয়েকজন দোকানদার সাহায্যে এগিয়ে আসেন। তাদের দেখেই পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: