‘কবীর সিং’ নিষিদ্ধ করার দাবি ডাক্তারদের!

মুক্তির চার দিনের মধ্যেই ‘কবীর সিং’ বক্স অফিসে ৮৮.৩৭ কোটির ব্যবসা করেছে। আর কিছুদিনের মধ্যেই তা ১০০ কোটির ক্লাবে প্রবেশ করবে। ‘কবীর সিং’ তেলেগু ছবি ‘অর্জুন রেড্ডি’-র রিমেক এবং পরিচালনা করেছেন সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা, যিনি ‘অর্জুন রেড্ডি’-র পরিচালক বটে।
ছবিতে শাহিদকে মদ্যপ ডাক্তারের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়। তবে অনেকেই এই বিষয়কে ভালো চোখে দেখেননি। কেউ বলছেন, ছবিতে স্ত্রী-বিদ্বেষ এবং পুরুষালী বিষয়কে তুলে ধরা হয়েছে।
পাশাপাশি হিংসাত্মক ঘটনা দেখানো হয়েছে। তবে এবার ‘কবীর সিং’ নিয়ে সরব হলেন মুম্বাইয়ের কয়েকজন ডাক্তাররা। তারা জানান, অবিলম্বে ছবি দেখানো বন্ধ করতে হবে। ডাক্তারদের ভাবমূর্তিকে নষ্ট করা হয়েছে।
এমনকি তারা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। চিঠিতে বলা হয়েছে, ছবিতে ডাক্তারদের বাজে ভাবে দেখানো হয়েছে। ইনফরমেসান অ্যান্ড ব্রডকাস্টিং মিনিস্টার, স্টেট হেলথ মিনিস্ট্রি, সেন্ট্রাল হেলথ মিনিস্টার এবং সেন্সর বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন আপনারা এই ছবি অবিলম্বে বন্ধ করুন। সমাজে একটা বাজে প্রভাব পড়বে।
পাশাপাশি, ডাক্তাররা নির্মাতাদেরও নিশানা করে বলেছেন, আপনারা ডাক্তারদের পেশাকে বদনাম করেছেন এবং সমাজে ভুল বার্তা দিচ্ছেন। তবে এসবের পাশাপাশি অভিনেতার ভক্তরা আনন্দের সঙ্গেই ছবি উপভোগ করছেন। এমনি শাহিদের মহিলা ভক্তরা অভিনেতার এই রূপ পছন্দও করেছেন। প্রচারের সময় শাহিদ জানান, ছবিতে মদ্যপান এবং ধূমপানের দৃশ্য রয়েছে, তবে তা গোটা ছবিতে নয়।
তিনি জানান, সিনেমা নিয়ে আমরা একটু বেশি চিন্তাভাবনা করি। তবে আন্তজার্তিক স্তরে আমরা যখন কোনও ছবি দেখি এবং গল্প ভালো লাগলে প্রশংসাও করি। আমার মনে হয়, প্রত্যেকেই আমরা নিজ নিজ জায়গায় পারদর্শী নই। তবে আমাদের ভালো এবং খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে চলতে হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: