কুকুরের জন্য রেস্টুরেন্ট!

একটু সময় কাটাতে ও পেটপুজা করতে যাবেন রেস্টুরেন্টে। প্রিয়জনের সঙ্গে গেলেও সাথে নেয়া যাচ্ছে না প্রিয় কুকুরটিকে। ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও ঘরেই রেখে যেতে হয় তাদের। কিন্তু এবার তাদের জন্যই দরজা খুলে দিয়েছে ভারতের কর্ণাটকের একটি ক্যাফে। কুকুরদের জন্যই বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে ম্যাঙ্গালুরুর এই পেট রেস্টুরেন্ট। যার নাম ‘কে-নাইন রেস্ট্রো’।
মানুষের পাশাপাশি স্বাচ্ছ্যন্দে বসে খাবার খাচ্ছে কুকুর। ঘুরে বেড়াচ্ছে এদিক-সেদিক। কোন বাড়ি কিংবা পেট হাউজ নয় ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের কর্ণাটকের একটি রেস্টুরেন্টে দেখা মিলবে এমন চিত্রের।
একজন দর্শনার্থী বলেন, ম্যাঙ্গালুরুতে এ ধরনের একটি উদ্যোগ নেয়ায় আমি খুবই খুশি। মানসিক চাপ কমাতে পশুপ্রেমীদের জন্য এটি একটি দারুন জায়গা। আমি প্রায়ই এখানে আসি। এ ক্যাফের খাবার এবং কুকুরদের সঙ্গে সময় কাটানো আমি দারুণ উপভোগ করি।
সম্প্রতি কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালুরুতে চালু করা হয় অঞ্চলটির প্রথম এই পেট ক্যাফে। কার্তিক শেট্টি নামে একজন প্রাণিপ্রেমী ‘কে-নাইন রেস্ট্রো’ নামে ব্যতিক্রমী এ ক্যাফেটি প্রতিষ্ঠা করেছেন।
কে-নাইন রেস্ট্রোতে কুকুরদের জন্য বিশেষ খাবারের পাশাপাশি মিলবে কলার, বোসহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম। একইসঙ্গে এ ক্যাফেতে রয়েছে কুকুরদের খেলার জায়গা এবং ট্রেনিং, স্পা ও পরিচর্যার ব্যবস্থা।
কার্তিক শেট্টি বলেন, বেশিরভাগ রেস্টুরেন্টে পোষা প্রাণী নিয়ে প্রবেশ নিষেধ। ম্যাঙ্গালুরুতে এ ধরনের কোন ব্যবস্থাই নেই। এ কারণেই আমার এমন পরিকল্পনা। আমাদের এ ক্যাফেতে পোষাপ্রাণির জন্য বিশেষ খাবার, ট্রেনিং স্কুল ও পরিচর্যাসহ সব ধরনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। যাতে মানুষজন তার পরিবার, বন্ধু ও প্রিয় প্রাণীটিকে নিয়ে এখানে আসতে পারেন এবং খাবারের স্বাদ নেয়ার পাশাপাশি স্বচ্ছ্যন্দে সময় কাটাতে পারেন।
তবে শুধু পোষা প্রাণী থাকলেই এখানে আসতে পারবেন এমনটা নয়, যাদের নিজেদের নেই তবে ভালোবাসেন, তারাও আসতে পারবেন এ ক্যাফেতে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: