কোনটা সরকারি, কোনটা বিরোধী দল বুঝি না: রুমিন

আগামী অর্থবছরের বাজেট পাসের দিন আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির সংসদ সদস্য সংসদে বিরোধী দলের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। জাতীয় পার্টির সদস্যদের বক্তব্যের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেছেন, সংসদে সরকারি আর বিরোধী দল কোনটি, সেটা তিনি বুঝতে পারছেন না। তবে পরে জাতীয় পার্টির সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু তার জবাব দিয়ে বলেছেন, কেবল বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা তারা করতে চান না।
রবিবার সকালে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর ছাঁটাই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। মন্ত্রীরা বিভিন্ন খাতে রাষ্ট্রপতিকে বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব সংসদে তোলেন। আর বিরোধী দলের পক্ষ থেকে এসব প্রস্তাবের বিরোধিতা করা হয়। পরে মন্ত্রীরা সেসব যুক্তি খণ্ডন করেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন স্বাস্থ্যখাতে পরিচালনা এবং উন্নয়ন ব্যয়ের জন্য রাষ্ট্রপতিকে বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব রাখেন। আর জাতীয় পার্টি ও বিএনপির বেশ কয়েকজন সদস্য এর ওপর ছাঁটাই প্রস্তাব করেন। তারা বিশেষ করে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতি এবং রোগ পরীক্ষার যন্ত্রপাতি ব্যবহার না করার বিষয়টি তুলে ধরে স্বাস্থ্যখাতে এক টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব রাখেন।
এক পর্যায়ে বিএনপির কোটায় সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য রুমিন ফারহানা দুই মিনিট বক্তব্য রাখেন। তিনি শুরুতেই বলেন, ‘মাননীয় স্পিকার, সংসদে কোনটা সরকারি দল, কোনটা বিরোধী দল, এটাই তো বুঝি না।’
এই সংসদ সদস্য বলেন, বাংলাদেশে চিকিৎসা খাতে বরাদ্দ শতকতা হারের দিকে নেপাল, ভুটান এমনকি আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের চেয়ে কম। ফলে মানুষকে নিজের পকেট থেকে ব্যয় করতে হয়। স্বাস্থব্যয়ের দিক থেকে ব্যক্তিগত ব্যয় এমনকি আফ্রিকার বিভিন্ন দেশেও বাংলাদেশের চেয়ে কম।
পরে জাতীয় পার্টির সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু বক্তব্য দিতে এসে এর জবাব দেন। তিনি বলেন, ‘মাননীয় স্পিকার, সংসদে বিরোধী দলের কাজ কী? তাদের কাজ সরকার কোনো ভুলত্রুটি করলে সেটা ধরিয়ে দেওয়া। শুধু সমালোচনার জন্য সমালোচনা না। আমরা সেই কাজটিই করি।’
সপ্তম এবং নবম সংসদে বিরোধী দল বিএনপির প্রায়ই অনুপস্থিতির কথা তুলে ধরে চুন্নু বলেন, ‘চার বছরে ১০ কার্যদিবস সংসদে উপস্থিতি, এই ধরনের বিরোধী দল আমরা হতে চাই না।’

Leave a Reply

%d bloggers like this: