ডিআইজি মিজানের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ ও জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন।
বৃহস্পতিবার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক মঞ্জুর মোরশেদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ দেন।
অসাধু উপায়ে অর্জিত সম্পদ বা সম্পত্তির বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে তা বেহাত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে বলে ডিআইজি মিজানুর রহমানের স্থাবর সম্পত্তি ক্রোক ও ব্যাংক হিসাব জব্দের এই আদেশ দেওয়া হয়।
এর আগে গত ১২ জুন পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের সম্পদ অনুসন্ধানে দায়িত্ব দেওয়া হয় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক মঞ্জুর মোরশেদকে। ঘুষগ্রহণ ও তথ্য পাচারের অভিযোগে আগের অনুসন্ধান কর্মকর্তা দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করার পর এই নিয়োগ দেওয়া হয়।
ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের সেরেস্তাদার রাশেদুল ইসলাম এ বিষয়ে এনটিভি অনলাইনকে জানিয়েছেন। তিনি জানান, ডিআইজি মিজানের ৫৫ লাখ টাকার বেইলি রিটজ নামক ভবনের চতুর্থ তলার অ্যাপার্টমেন্টে একটি ফ্ল্যাট এবং কার পার্কিং স্পেসসহ ৫৫ দশমিক ৫১ অযুতাংশ জমি, কাকরাইলে দুই কোটি ২০ লাখ টাকার একটি বাণিজ্যিক ফ্ল্যাট, দোকান ও জমি ক্রোক করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যার মূল্য মোট তিন কোটি ৪৩ লাখ ৭৪ হাজার ৪৬০ টাকা। এ ছাড়া সিটি ব্যাংকের ধানমণ্ডি শাখায় ১০ লাখ টাকা রয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: