প্রেমের বিয়েতেও রয়েছে প্যারা

অনেকে ভাবেন প্রেমের বিয়েতে ঝামেলা কম। বর আগে থেকে চেনাজানা। হবু শ্বশুরবাড়িও অনেক দিনের চেনা। কোনো সমস্যা হবে না। এতদিন ধরে একে অপরকে চেনার জন্য দুজনেই দুজনের সবটা জানেন। পছন্দ অপছন্দ জানেন। বিয়ের পর পথচলা খুব সহজ হবে। ভুল ভাবছেন।
কিন্তু অভিজ্ঞরা বলছেন ভিন্ন কথা। প্রেম করে বিয়ে মানেই রোমান্স নয়; রয়েছে অনেক ঝামেলাও।
১. প্রেম করার পর বাড়িতে অশান্তি হয়নি এমন লোকের সংখ্যা কম। ছেলেমেয়ের মুখের দিকে চেয়ে বাড়ির লোকজন বিয়েটা মেনে নেন, কিন্তু খিটিমিটি চলতেই থাকে। পরবর্তীতে খোঁটা দিতে ভোলেন না।
২. অনেক লড়াই, অভিমান আর চোখের পানি নিয়েও অনেকে বিয়ে করেন। এমনকি পালিয়ে বিয়ে করতেও বাধ্য হন। এর ফলে মানসিক ও সামাজিক প্রভাব পড়ে। ফলে সেই বিয়েতে খুশি থাকে না, বলা যায় নিজের জেদ বজায় থাকে মাত্র।
৩. প্রেমিক আর স্বামীর মধ্যে ফারাক রয়েছে। যা বিয়ে না হলে টের পাওয়া যায় না। কারণ প্রেমের ক্ষেত্রে কোনও বাধ্য বাধকতা থাকে না। কিন্তু বিয়ের পর ফ্ল্যাট, গাড়ি, ইএমআই সবই ভাবতে হয়। একসঙ্গে থাকতে শুরু করলেই তবে একে অপরকে চেনা যায়।
৪. বিয়ের আগে এসে দু একদিন থাকা আর বিয়ের পর ২৪ ঘণ্টা একসঙ্গে থাকার ব্যাপারটা আলাদা। একটা মেয়েকে নতুন পরিবেশ, নতুন মানুষ, সবকিছুই নতুনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়।
৫. বেশিরভাগ মেয়েই চান বিয়ের পর আলাদা সংসার পাততে। কিন্তু এতে ছেলের মায়েরা সায় দেয় না। তারা ভাবেন ছেলে বুঝি এবার হাতছাড়া হয়ে গেল। সেই থেকে শুরু আশান্তি।
৬. তুমি নিজে পছন্দ করে বিয়ে করেছ, সুতরাং কোনো সমস্যা হলে দায় তোমার। আগে বুঝে নাওনি কেন।
৭. প্রেম করার সময় এটা-ওটা কোনো সমস্যা নয়। কিন্তু পরবর্তীতে এই নিয়েই সমস্যা হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: