ভারতে ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়ে প্রশ্ন তুললেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারতের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বিশেষত মুসলমানদের ওপরে হিন্দুত্ববাদী চরমপন্থী গোষ্ঠীগুলোর হিংসাত্মক আক্রমণের ঘটনা ঘটছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা সংক্রান্ত যে প্রতিবদেন দিয়ে তার ওপর জোরালো সমর্থন দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।
ভারতের নাগরিকদের ধর্মীয় স্বাধীনতার পক্ষে জোরালো প্রশ্ন তুলেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ধর্মীয় স্বাধীনতার সঙ্গে আপস করা মানে বিশ্বকে খারাপ পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দেয়া।’
বুধবার দুপুরে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে বৈঠকে বসেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও বৈঠক করেছেন পম্পেও।
ভারতে সংখ্যালঘু মুসলমানদের ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে মাইক পম্পেও বলেন, ‘বিশ্বের ৪টি বহুল প্রচলিত ধর্মের জন্মভূমি ভারত৷ আসুন সবাই মিলে ধর্মীয় স্বাধীনতার পক্ষে একজোট হই। সবাই মিলে ধর্মীয় স্বাধীনতার জন্য উঠে দাঁড়াই। না হলে এ বিশ্ব সুন্দর থাকবে না।’
একই সঙ্গে জঙ্গি মাসুদ আজহারকে গ্লোবাল টেররিস্ট তালিকায় ঢোকানোর জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জকে ধন্যবাদও জানান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তার কথায়, ‘বিশ্বের দরবারে ভারত ক্রমেই আরও মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে৷ এই ইতিবাচক দিককে যুক্তরাষ্ট্র স্বাগত জানাচ্ছে৷’

Leave a Reply

%d bloggers like this: