ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানকে ‘মোবাইল কোর্ট’ বলতে না

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের তদারকি অভিযানকে ‘মোবাইল কোর্ট’ হিসেবে আখ্যায়িত না করার জন্য গণমাধ্যমের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে সরকার।
রোববার সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এ কথা বলা হয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর গত ১২ জুন এক পত্রের মাধ্যমে গণমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এ অনুরোধ জানান বলে তথ্য বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়েছে।
অধিদপ্তরের বাজার তদারকি অভিযানকে গণমাধ্যমে মোবাইল কোর্ট হিসেবে সংবাদ পরিবেশন করায় জনমনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে একটি পত্র পাঠান চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার।
‘সে পরিপ্রেক্ষিতে জনমনে বিদ্যমান ভুল ধারণা দূরিকরণের লক্ষ্যে পরবর্তী সময়ে সঠিক সংবাদ পরিবেশনের সময় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও গণমাধ্যমগুলোকে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ অনুরোধ জানিয়েছে।’
আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বাজার তদারকি অভিযান পরিচালনা করে আসছেন। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কোনো কর্মকর্তার মোবাইল কোর্ট পরিচালনার এখতিয়ার নেই বলেও তথ্য বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়েছে।
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ ও ভোক্তা অধিকার বিরোধী কার্যকলাপ রোধের নিমিত্ত ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর ৭০(১) ধারা অনুযায়ী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রশাসনিক ব্যবস্থা হিসেবে জরিমানা আরোপ করতে পারেন, যা পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে পরিশোধযোগ্য।

Leave a Reply

%d bloggers like this: