সিসিইউতে এরশাদ

: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ গুরতর অসুস্থ। ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে তাকে।
বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্ক থেকে দ্রুত সিএমইএইচে নেওয়া হয়। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে সিসিইউতে রাখা হয়েছে।
চিকিৎসকের বরাত দিয়ে হাসপাতালে উপস্থিত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের এক সহকারী বলেন, স্যার, নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। চিকিৎসকরা এ কথা জানিয়েছেন। সিসিইউতে রেখে তার চিকিৎসা চলছে। তাকে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়েছে। আশা করি, দ্রুত সুস্থ হয়ে ‍উঠবেন।
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের ওই সহকারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, মঙ্গলবার রাত থেকে স্যারের খারাপ লাগছিল। গায়ে জ্বর ওঠানামা করছিল। শরীরও দুর্বল হয়ে পড়ে। খাওয়া-দাওয়া ঠিকমত ছিল না। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে অবস্থার অবনতি ঘটলে স্যার নিজেই সিএমইএইচে যাওয়ার জন্য বলেন। সাড়ে ৮টার দিকে স্যারকে (এরশাদ) সিএমইএইচে ভর্তি করা হয়।
হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অসুস্থতার খবর পেয়ে মতিঝিলে বিভাগীয় সাংগঠনিক কর্মসূচি শেষ করে সিএমইএইচে ছুটে যান তার ছোট ভাই জি এম কাদের। বিকেলে দেখতে যান দলের সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, বর্তমান মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, রংপুরের মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফাসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী।
রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, স্যারের অসুস্থতার খবর পেয়ে আমি সিএমইএইচে ছুটে গেছি। তাকে সিসিইউতে রাখা হয়েছে। ডাক্তারদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন, স্যারের কিছু সমস্যা হয়েছে, সেগুলো আমরা অ্যাড্রেস করছি। যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
প্রয়োজনে বিদেশ নেওয়ার প্রস্তুতির কথা জানালে রুহুল আমিন হাওলাদারকে চিকিৎসকরা জানান, এইচ এম এরশাদকে আপাতত বিদেশ নেওয়ার দরকার নেই। তাকে বিশ্বমানের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার শারীরিক অবস্থা ক্লোজ মনিটরিং করা হচ্ছে।’
হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের রোগমুক্তি কামনায় দেশবাসী ও দলের নেতাকর্মীদের দোয়া কামনা করে রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, মহান আল্লাহর রহমতে আশা করি, স্যার দ্রুত সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: