অবিবাহিত মেয়েদের আন্দোলন নিয়ে চিন্তায় দক্ষিণ কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়ার মেয়েরা দিনে দিনে বিয়ে কিংবা মাতৃত্ব থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে নিচ্ছে। ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেশটির মেয়েরা রীতিমতো বিয়ে না করার আন্দোলনে নেমেছেন!
দক্ষিণ কোরিয়া অনেক আগে থেকে কম জন্মহার নিয়ে চিন্তায় আছে। তার ভেতর মেয়েদের এমন আন্দোলনে সরকারের চাপ আরও বাড়ছে।
বিশ্ব ব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী উন্নত দেশগুলোর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ায় জন্মহার সবচেয়ে কম। ২০১০ সালেও দেশটির ৬৪.৭ শতাংশ নারী মনে করতেন বিয়ে তাদের জন্য জরুরি একটি বিষয়। কিন্তু ২০১৮ সালের এক জরিপে জানা গেছে, মাত্র ৪৮.১ শতাংশ নারী এমনটি মনে করেন!
দক্ষিণ কোরিয়ার ইউটিউব তারকা বেক হ্যা-না তাদেরই একজন। তিনি বলছেন, ‘৩০ বছর বয়সে এসে বিয়ে না করার জন্য সমাজ আমাকে ব্যর্থদের কাতারে ফেলতে চায়। কিন্তু কারো সঙ্গে ঘর বাঁধার চেয়ে আমি আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে বেশি মনোযোগী।’
বেক এবং তার সহকারী জুং সে-ইয়ং তাদের ইউটিউব চ্যানেলে #NoMarriage মুভমেন্টের প্রচারণা চালাচ্ছেন। তারা ওই অনুষ্ঠানের নাম দিয়েছেন SOLOdarity।
মাত্র পাঁচ মাসে তাদের চ্যানেলের ২৩ হাজার সাবস্ক্রাইবার হয়ে গেছে।
দক্ষিণ কোরিয়ায় আরেকটি গ্রুপ আছে যারা ‘এলিট উইদাউট ম্যারেজ, অ্যাম গোয়িং ফরওয়ার্ড’র সদস্যা। এই গ্রুপের মেয়েরা নিজেদের ‘বি-হোন’ হিসেবে পরিচয় দিতে ভালোবাসেন। যারা বিয়ে করেননি তাদেরকে দেশটিতে ‘বি-হোন’ বলা হয়।
এই গ্রুপের নারীরা একে-অপরকে এ বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করেন। সরকারি চাপ সামলে কীভাবে অবিবাহিত থাকা যায়, সেই পথও খোঁজেন তারা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: