কৌতুক-22

সকালবেলা এক ডাক্তারের চেম্বারে একজন লোক এসে উপস্থিত। তার পিঠে প্রচণ্ড যন্ত্রণা। ডাক্তার জানতে চাইলেন যন্ত্রণার কারণ।

“আর বলবেন না ডাক্তারবাবু। আমার নাইট-শিফ্ট ডিউটি। সকালবেলা ফেরার পর বেডরুমে একটা সন্দেহজনক আওয়াজ পেয়ে আমি ছুটে গিয়ে দেখি ব্যালকনির দরজা খোলা। ব্যালকনিতে গিয়ে দেখি কেউ নেই। তখন ব্যালকনির নীচে তাকিয়ে দেখলাম একটা লোক জামা পরতে পরতে ছুটে পালাচ্ছে। হাতের কাছে আর কিছু না পেয়ে ফ্রিজটা তুলেই আমি ওর দিকে ছুড়ে দিলাম। আর ফ্রিজটা তুলতে গিয়েই আমার এই অবস্থা। “

কিছুক্ষণ বাদে আরেকজনের আবির্ভাব। তাকে দেখে মনে হয় তার ওপর দিয়ে বুলডোজার চলে গেছে। ডাক্তার কারণ জানতে চাইলে সে বলল ” আজ সকালে ঘুম থেকে উঠতে একটু দেরি হয়ে গিয়েছিল। তাড়াতাড়ি করে অফিসের জন্য বেরোচ্ছিলাম জামা প্যান্টে গুজতে গুজতে, এমন সময় মাথার ওপর একটা ফ্রিজ এসে পড়ল। আর এই অবস্থা।

এরপর তিন নম্বর রোগীর আবির্ভাব। তার হাল আগের দুজনের চাইতেও খারাপ। ডাক্তার জানতে চাইলে সে বলল ” কী আর বলব ডাক্তারবাবু, আমি ফ্রিজের মধ্যে বসেছিলাম, কাজ নেই কম্ম নেই কোন এক হতচ্ছাড়া সেটাকে তিনতলা থেকে ছুড়ে ফেলে দিল।”

Leave a Reply

%d bloggers like this: