চট্টগ্রামে ছেলেধরা ভেবে তিন ছিনতাইকারিকে গণপিটুনি, গাড়িতে আগুন

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় প্রাইভেটকারে এসে এক নারী থেকে দুল ও স্বর্ণালংকার ছিনতাই করার সময় তিনজনকে গণপিটুনি দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। এসময় তাদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।
মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল পৌনে ৯টার দিকে উপজেলার ছিপাতলী এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। গণপিটুনির শিকার তিনজন হলেন- লোহাগাড়া উপজেলার আদু নগর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবদুল মালেক (৬০), একই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহী পাড়ার নুর ইসলাম (৬০), পদুয়া ইউনিয়নের পদুয়া মৌলভীপাড়ার বাসিন্দা প্রাইভেটকার চালক নুর কবির (২৮)।
পুলিশ জানিয়েছে, গণপিটুনির শিকার তিনজন সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য। এক নারীর কাছ থেকে স্বর্ণালঙ্কার হাতিয়ে নিয়ে পালাচ্ছিল তারা। সে সময় ছেলেধরা সন্দেহে তাদের ধরে পিটুনি দেয় স্থানীয়রা।
চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাটহাজারী সার্কেল) আবদুল্লাহ আল মাসুম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘প্রতারক চক্রের ওই তিন সদস্য তাবিজ দিয়ে টাকা এবং স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নিত। একইভাবে সকালে তারা এক নারীর কাছ থেকে কৌশলে স্বর্ণালঙ্কার হাতিয়ে নিয়ে পালাচ্ছিল।
সে সময় স্থানীয় লোকজন তাদের ধাওয়া দিয়ে আটক করে গণপিটুনি দেয়। স্থানীয়রা তাদের ব্যবহৃত গাড়িও পুড়িয়ে দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে উদ্ধার করে।’
আবদুল্লাহ আল মাসুম আরও বলেন, ওই নারীর চিৎকারে সবাই ভেবেছিল তারা প্রাইভেটকারে শিশু অপহরণ করে পালিয়ে যাচ্ছে। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় জনতা আরও উত্তেজিত হয়ে ওঠে। তিনজনের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একটি প্রাইভেটকারযোগে ওই তিনজনসহ অজ্ঞাতনামা এক যুবক হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের সামনে আসেন। তারা অজ্ঞাতনামা এক নারীকে কথিত রাজমোহনী তাবিজ দেওয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে কৌশলে কানের দুল ও স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন।
ওই নারীর চিৎকার শুনে পথচারী কয়েকজন আসার আগেই প্রাইভেটকারে করে পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় কয়েকজন যুবক তাদের ধরে ফেলেন। পরে গণপিটুনি দিয়ে তাদের প্রাইভেটকারে আগুন ধরিয়ে দেয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: