ট্রাম্পের কাছে সময় চেয়েও পাচ্ছেন না মোদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আগামী মাসে ফ্রান্সে জি-৭ সম্মেলনে আমন্ত্রণ পেয়েছে ভারত। এর পরের মাসেই নিউ ইয়র্কে রয়েছে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশন। দুটি সম্মেলনেই যোগ দেবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
যথারীতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও থাকবেন এই সম্মেলন দুটিতে। ভারতের পক্ষ থেকে এই দুই সম্মেলনের ফাঁকে ট্রাম্প-মোদির বৈঠকের চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে বৈঠকের জন্য সময় চেয়েও ট্রাম্প প্রশাসনের কাছ থেকে এখনও পর্যন্ত ইতিবাচক সাড়া পায় নি ভারত।
সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় দিল্লির কূটনীতিকদের একাংশ মনে করছে, আফগানিস্তানে শান্তি প্রক্রিয়ায় গতি আনতে গিয়ে আমেরিকার পাকিস্তান নির্ভরতা বাড়ছে। এতে আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ছে নয়াদিল্লির স্বার্থ। কূটনীতি বিশেষজ্ঞদের অনেকে এ-ও মনে করছেন, অদূর ভবিষ্যতে ভারত-মার্কিন সম্পর্কে যেটুকু অগ্রগতি হলেও হতে পারে, সেটা বাণিজ্য ক্ষেত্রে। কিন্তু কৌশলগত বিষয়ে আমেরিকাকে কতটা পাশে পাওয়া যাবে, তা নিয়ে সংশয় থাকছে।
ওভাল অফিসে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে ট্রাম্পের সাম্প্রতিক বৈঠকের পরে নতুন এই আন্তর্জাতিক সমীকরণের আঁচ মিলছে বলে মনে করছেন কূটনীতি বিশেষজ্ঞরা। চলতি বছরেই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে আগামী বছর সেখানে ভোট করানোর জন্য তাড়া রয়েছে ট্রাম্পের। এই অবস্থায় ভূকৌশলগত কারণেই কাবুলে শান্তি প্রক্রিয়াকে দ্রুত এগিয়ে নিতে এবং তালেবানের সঙ্গে কথা বলে তাদের প্রশমিত করতে পাকিস্তানের উপর নির্ভরতা বেড়েছে ট্রাম্পের। ইমরানের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প সে কথা বুঝিয়েও দিয়েছেন স্পষ্ট ভাষায়। শুধু তা-ই নয়, কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতার কথায় মোদির নাম জড়িয়ে ভারতকে চাপে ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। তাই ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে নড়েচড়ে বসেছে সাউথ ব্লক।

Leave a Reply

%d bloggers like this: