পাকিস্তানকে হতাশ করে সেমিতে ইংল্যান্ড

শেষ চার নিশ্চিত করতে আজ জয়ের বিকল্প ছিল না ইংল্যান্ডের সামনে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেই কাঙ্ক্ষিত জয় তুলে নিতে কোন ভুল করেনি ইয়ন মরগানের দল। এদিন ১১৯ রানে জিতেছে তারা। এই জয়ে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করেছে স্বাগতিক দেশটি।
এদিকে ইংল্যান্ডের স্বস্তিতে সেমির স্বপ্ন আবার ধাক্কা খেল পাকিস্তানের। গতকাল ভারতের জয়ের পর তারা তাকিয়েছিল এই ম্যাচের দিকে। আশা ছিল হয়তো জিতে যাবে নিউজিল্যান্ড। তাহলে পরের ম্যাচে বাংলাদেশকে হারালেই চলতো তাদের। কিন্তু ভারতের মতো তাদের হতাশ করল নিউজিল্যান্ডও।
এখন শেষ চারের আশা আরো ক্ষীণ হয়ে হয়ে গেল সরফরাজ আহমেদদের। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ জিতলে তাদের পয়েন্ট হবে ১১। হারলে তো কথাই নেই। এদিকে নিউজিল্যান্ডের পয়েন্টও ১১। কিন্তু রানরেটে কিউইরা অনেক এগিয়ে।
পাকিস্তানের গল্প বাদ দিয়ে আসা আজ আজকের ম্যাচে। চেস্টার লি স্ট্রিটে আজ প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩০৪ রান করেছে ইংল্যান্ড। জবাবে ৪৪.৫ ওভারে ১৮৬ রানে অল আউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।
ইংল্যান্ডের দেওয়া রান তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে কিউইরা। দলীয় ২ রানের মাথায় ওপেনার হেনরি নিকোলকে হারায় (০)। অন্য ওপেনার মার্টিন গাপটিল (৮) যখন বিদায় নেন নিউজিল্যান্ডের রান তখন ১৪।
এরপর আর কেউ দাঁড়াতে পারেননি। মিডল অর্ডারে টম ল্যাথাম কিছুটা লড়াই করেন। তার ব্যাট থেকেই দলীয় সর্বোচ্চ ইনিংসটি পায় নিউজিল্যান্ড। লিয়াম প্লাঙ্কেটের বলে আউট হওয়ার আগে ৫৭ রান করেন ল্যাথাম।
এদিন দলের হাল ধরতে পারেননি কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও। ব্যক্তিগত ২৭ রানে রান আউটের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ২৮ রান করা রস টেইলরও শিকার হন রান আউটের। এছাড়া জিমি নিশাম করেছেন ১৯ রান।
ইংল্যান্ডের হয়ে ৩৪ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন মার্ক উড। এছাড়া ক্রিস ওকস, জোফরা আর্চার, প্লাঙ্কেট, ও বেন স্টোকস নিয়েছেন একটি করে উইকেট। ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন জনি বেয়ারস্টো।
এই জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে উঠে আসল ইংল্যান্ড। আর নিউজিল্যান্ড ১১ পয়েন্ট নিয়ে আছে চারে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: