পাকিস্তানি বাসচালকের ছেলেকে অর্থমন্ত্রী, ভারতীয় নারীকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করলো ব্রিটেন

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে গতকাল বুধবার শপথ নিয়েছেন কনজারভেটিভ পার্টির নেতা বর্ণবাদী বরিস জনসন। শপত নিয়েই মন্ত্রিসভায় ব্যাপক রদবদল এনেছেন তিনি। ব্রেক্সিটের সমর্থক সংসদ সদস্যদেরই মন্ত্রিসভায় প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। আর সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র মন্ত্রিসভার অর্ধেকেরও বেশি এমপি পদত্যাগ করেছেন এবং মে’র মন্ত্রিসভার ১৭ জন সদস্যকে বরখাস্ত করেছেন জনসন।
এর মধ্যে পাকিস্তানি অভিবাসী বাসচালকের সন্তান সাজিদ জাভিদকে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী। আর ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রীতি প্যাটেলকে করা হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
যুক্তরাজ্যে এই প্রথম কোনও নৃতাত্ত্বিক সংখ্যালঘুকে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হলো। নতুন অর্থমন্ত্রী ব্রেক্সিট সমর্থক সাজিদ জাভিদকে একটি আধুনিক, বহু-সংস্কৃতি ও মেধাভিত্তিক ব্রিটেনের প্রতিচ্ছবি বলে উল্লেখ করা হয়েছে এএফপির প্রতিবেদনে।
অন্যদিকে ২০১৬ সালের দিকে যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী ছিলেন মার্গারেট থ্যাচারপন্থি হিসেবে পরিচিত প্রীতি প্যাটেল।
প্রীতির বাবা-মা প্রথমে ভারত ছেড়ে উগান্ডায় পাড়ি জমিয়েছিলেন। ষাটের দশকে প্রেসিডেন্ট ইদি আমিন এশীয়দের বহিষ্কারের ঘোষণা দিলে তারা যুক্তরাজ্যে আশ্রয় নেন। প্রীতির জন্ম গ্রেটার লন্ডনের উত্তরপূর্বের পৌরশহর হ্যারোওয়েতে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: