প্রেমের জন্য ২৪০০ কি.মি পাড়ি দিয়ে একী দেখলেন প্রেমিক!

কথায় আছে, দূরত্ব বেশি হলেই নাকি ভালোবাসার সম্পর্ক সবচেয়ে মিষ্টি হয়। আর এই সম্পর্ক নাকি আরও প্রগাঢ় হয়, যখন এটা চারজনকে জড়িত করে। আর তা হলো- প্রেমিক যুগল এবং তাদের পার্শ্ব প্রেমীরা।
তবে সম্প্রতি প্রেমের সম্পর্কের মধ্যে দীর্ঘ দূরত্বটা মিষ্টির পরিবর্তে তিক্ততায় রূপান্তরিত হয়েছে। ভাল্লুকের ছদ্মবেশ ধারণ করে প্রেমিকাকে চমকে দেওয়ার জন্য ২৪০০ কিলোমিটার পাড়ি দেন ওই প্রেমিক। কিন্তু গন্তব্যে এসে দেখলেন প্রেমিকা অন্যের বাহুবন্ধনে! সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা ঘটে চীনে।
পরে এই ঘটনার কয়েকটি ছবি টুইটারে শেয়ার করেন অজ্ঞাত এক ব্যক্তি। ছবিগুলো শেয়ার করার পরপরই তা ভাইরাল হয়ে যায়। খবর পিনাক্স অনলাইনের।
খবরে বলা হয়, ভাল্লুকের ছদ্মবেশধারী প্রেমিক বহুদিন ধরেই অনেক দূর থেকে সম্পর্ক রাখছিলেন তার প্রেমিকার সঙ্গে। এরই মাঝে একদিন তিনি প্রেমিকাকে চমকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, আর সেজন্য পাড়ি দেন ২৪০০ কিলোমিটার পথ! কিন্তু এই পথ পাড়ি দিয়ে গিয়ে যা দেখলেন, তাতে হৃদয় ভেঙে মুষড়ে পড়েন তিনি।
নিজের প্রেমিকাকে অন্যপুরুষের বাহুডোরে দেখতে পান তিনি। যা দেখে রীতিমত বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন ওই প্রেমিক। মাথা থেকে ভাল্লুকের মুখোশটি সরিয়ে প্রতারক প্রেমিকা ও তার অপর প্রেমিকের দিকে তাকিয়ে থাকেন নির্বাক হয়ে।
এসময় তাদের দিকে কেউ একজন তাকিয়ে আছে বুঝতে পেরে মাথা ঘুরিয়ে দেখেন তার প্রেমিকা। তাকিয়েই দেখতে পান- টেডি বিয়ারের ছদ্মবেশে নির্বাক দাঁড়িয়ে আছে তার প্রেমিক। কিন্তু প্রেমিক ছেলেটি তার সঙ্গে কোনও কথা না বলেই চলে যেতে উদ্যত হন এবং কান্না লুকানোর জন্য ভাল্লুকের মুখোশটি ফের মাথায় পরে নেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: