ভারতে সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রকাশিত হবে ৭ ভাষায়, নেই বাংলা

বহুভাষার দেশ ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রকাশিত হয় শুধু ইংরেজিতে। তবে এখন থেকে সরকারি তালিকাভুক্ত ২৩টি ভাষার ৭টি ভাষায় রায় প্রকাশিত হবে। তবে এই তালিকায় নেই দেশটিতে দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যবহৃত ভাষা বাংলা।
বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের মামলার রায় এখন থেকে ইংরেজি ছাড়াও হিন্দি, তেলেগু, অসমিয়া, মারাঠি, কন্নড়, ওড়িয়া ও তামিল ভাষায় পাওয়া যাবে। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে এসব ভাষায় পড়া যাবে সুপ্রিম কোর্টের বিভিন্ন মামলার রায়।
সংবাদমাধ্যম সূত্রে আরও বলা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এ কাজের জন্য প্রয়োজনীয় সফটওয়্যারের অনুমতি দিয়েছেন। গত বছরের নভেম্বর মাসে প্রধান বিচারপতি মাতৃভাষায় যাতে সাধারণ মানুষ শীর্ষ আদালতের রায় পড়তে পারেন, তার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন।
এদিকে সুপ্রিম কোর্টের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন তামিলনাড়ুর ডিএমকে প্রধান এম কে স্টালিন। বলেছেন, ‘এই আঞ্চলিক ভাষার মধ্যে তামিল ভাষা না থাকলে আমি হতাশই হতাম।’ জানা গেছে, শুনানির এক সপ্তাহের মধ্যে বিভিন্ন ভাষায় ওই রায় প্রকাশিত হবে।
প্রায় দেড়শ কোটি মানুষের দেশ ভারতে এখন সর্বাধিক ব্যবহৃত ভাষা হচ্ছে হিন্দি। আর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বাংলা ভাষা। ভারতে হিন্দি ভাষায় কথা বলছে ৪৩ দশমিক ৬৩ শতাংশ মানুষ। তাদের মাতৃভাষাই হলো হিন্দি। আর বাংলা ভাষায় কথা বলছে ৮ দশমিক ৩৪ শতাংশ মানুষ। ১৯৭১ সালের হিসাব অনুসারে দেশটিতে ১ হাজার ৬৫২টি ভাষা রয়েছে। এর মধ্যে সরকারি তালিকাভুক্ত ভাষা হিসাবে স্বীকৃত হয়েছে ২৩টি।

Leave a Reply

%d bloggers like this: