ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ স্থগিত, বাকি অংশ বুধবার

বৃষ্টির আশঙ্কা মাথায় নিয়েই ওল্ড ট্রাফোর্ডে মঙ্গলবার শুরু হয়েছিল ভারত-নিউজিল্যান্ডের প্রথম সেমি ফাইনাল। টস জিতে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ডের ইনিংসটি প্রায় নির্বিঘ্নেই শেষ হতে যাচ্ছিল। কিন্তু তাদের ইনিংসের ৪৬.১ ওভারের সময় বৃষ্টি নামে।
দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করার পরও খেলা শুরু করা যায়নি আজ। ফলে রিজার্ভ ডেতে গড়াল ম্যাচ। অর্থাৎ বুধবার আবার ওল্ড ট্রাফোর্ডে নামবে দুই দল। আজ যেখানে শেষ হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের ইনিংস, সেখান থেকেই শুরু হবে কালকের ম্যাচ। বাংলাদেশ সময় সাড়ে তিনটায় শুরু হবে ম্যাচটি।
বৃষ্টি নামার আগে অবশ্য মাঠে দাপট ছিল ভারতীয় বোলারদের। শুরু থেকেই দারুণ চাপে রাখে তারা কিউইদের। ফলে বড় স্কোর গড়তে পারেনি নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টি নামার আগে ২১১ রান করে তারা। হারিয়েছিল ৫ উইকেট।
এদিন প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ২৭ রান তুলতে পারেন নিউজিল্যান্ড। যা চলতি আসরে প্রথম দশ ওভারে করা সর্বনিম্ন রান।
দলীয় ১ রানের মাথায় মার্টিন গাপটিলকে হারায় কিউইরা। জসপ্রিত বুমরাহর বলে স্লিপে বিরাট কোহলিকে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন গাপটিল (১)। এরপর অবশ্য হেনরি নিকোলাসকে নিয়ে ৬৮ রানের একটি জুটি গড়েন কেন উইলিয়ামসন। যদিও তাদের রান তোলার গতি ছিল বেশ মন্থর।
রবীন্দ্র জাদেজার দারুণ এক বল নিকোলাসের ব্যাট ও প্যাডের ফাঁক গলে স্টাম্পে আঘাত হানলে ভাঙে এই জুটি। তার বআগে ৫১ বলে ২৮ রান করেন নিকোলাস।
নিউজিল্যান্ডের বোর্ডে রান তুলেন মূলত উইলিয়ামসন ও রস টেইলর। উইলিয়ামসন ৬৭ রান করে আউট হন। বৃষ্টির আগ পর্যন্ত ৬৭* রানে অপরাজিত থাকেন টেইলর।
উইলিয়ামসন-টেইলর জুটিটি ছিল ৬৫ রানের। এছাড়া জিমি নিশাম ১২ ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ১৬ রান করেছেন। টেইলরের সাথে ব্যক্তিগত ৩* রানে অপরাজিত ছিলেন টম ল্যাথাম।
উল্লেখ্য, বৃষ্টি হানা দিয়েছিল ভারত-নিউজিল্যান্ডের লিগ পর্বের ম্যাচেও। বৃষ্টিার কারণে ওই ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়েছিল।

Leave a Reply

%d bloggers like this: