রাখাইনকে বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্ত করতে চাই না: প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশের ভূখণ্ড হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে মার্কিন কংগ্রেসম্যানে ব্র্যাডলি শেরম্যান এর প্রস্তাব বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেছে, রাখাইনের মতো গোলমেলে স্টেটকে আমাদের দেশের সঙ্গে যুক্ত করতে চাই না। আমাদের এই অঞ্চলে আমরা একটু শান্তিপূর্ণভাবে থাকার চেষ্টা করছি এখানেও আগুন লাগানোর অপচেষ্টা। এটা কখনোই গ্রহণযোগ্য না।
সদ্য চীন সফর শেষে সোমবার (০৮ জুলাই) বিকেলে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, কংগ্রেসম্যান শেরম্যান বলেছেন রাখাইন স্টেটকে বাংলাদেশে যুক্ত করা হবে। বাংলাদেশ কোনো, আমাদের যে সীমানা আছে, ৫৬ হাজার বর্গ মাইল, ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৫৭০ বর্গকিলোমিটার। আমার তাতেই খুশি। অন্যের কাছে জমি নেওয়া বা ভোগ করার আমাদের কোনো ইচ্ছা নেই। আমার রোহিঙ্গাদের আমাদের দেশে জায়গা দিয়েছি। সুতরাং এ ধরনের কথা বলা এটা ঘোর অন্যায় কাজ। হতে পারে তারা বড় দেশ। সেই দেশের একজন কংগ্রেসম্যান। তারা কি ভুলে গেছে তাদের অতীত। যে তাদের দেশে গৃহযুদ্ধ লেগেই থাকতো। সেটা তো তাদের ভুলে যাওয়া উচিত নয়।
তিনি বলেন, আর রাখাইন যে পরিমান গোলমেলের স্টেট। আমরা জেনে-বুঝে এরকম একটা গোলমেলে জিনিস আমাদের দেশের সঙ্গে যুক্ত করবো কেনো। এছাড়া মিয়ানমার আমাদের প্রতিবেশি দেশ। রাখাইনের রোহিঙ্গারা যখন আশ্রয় চেয়েছিল, মানবিক কারণে আমরা তাদের আশ্রয় দিয়েছি। কিন্তু আশ্রয় দেওয়া অর্থ এটা না না যে, আমরা তাদের রাষ্ট্রের একটা অংশ নিয়ে চলে আসবো। সেই মানসিকতা আমাদের নেই, এটা আমরা চাই না। প্রত্যকটা দেশ তাদের নিজস্ব ল্যান্ড এবং সার্বভৌমত্ব নিয়ে থাকবে এটাই আমরা চাই এবং এটাও চাই তারা যেনো এসব কথা না বলেন মিয়ানমার যেনো তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিয়ে যায়, এই কংগ্রেসম্যান শার্নড দের সেটাই করা উচিত। সেটাই হবে মানবিক দিক।
তিনি আরও বলেন, এভাবে একটা দেশের ভেতর এধরনের গোলমাল পাকানো এটা কোনোমতেই ঠিক না এবং যেখানেই তারা হাত দিয়েছে সেখানেই আগুন জ্বলছে, কোথাও তো শান্তি আসেনি। বরং জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হয়েছে, অশান্তি সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের এই অঞ্চলটা আমরা একটু শান্তিপূর্ণভাবে থাকার চেষ্টা করছি এখানেও আগুন লাগানোর অপচেষ্টা। এটা কখনোই গ্রহণযোগ্য না।

Leave a Reply

%d bloggers like this: