সাবরাং মেরিন ড্রাইভ সড়কে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সিএনজি চালক নিহত, অস্ত্র-ইয়াবা-উদ্ধার

টেকনাফ টুডে
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. ইব্রাহিম (২০) নামে এক সিএনজি চালক নিহত হয়েছেন।
মঙ্গলবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের বাহারছড়ার কুড়াবুজ্জাপাড়ার নৌঘাট এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
বিজিবির দাবি, নিহত ইব্রাহিম এলাকার চিহ্নিত ইয়াবা পাচারকারী ছিলেন। ঘটনাস্থল থেকে ২০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশি বন্দুক, দুটি তাজা কার্তুজ, দুটি ধারালো কিরিচ এবং নিবন্ধনবিহীন একটি অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়েছে।
নিহত মো. ইব্রাহিম উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকার সৈয়দ আলীর ছেলে।
বিজিবি টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, সোমবার রাতে বিজিবির কুড়েরমুখ তল্লাশিচৌকিতে টহল দিচ্ছিলেন বিজিবি সদস্যরা।
এ সময় মেরিন ড্রাইভ সড়ক দিয়ে টেকনাফের দিকে চার যাত্রী নিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা আসছিল।
অটোরিকশাটিকে থামার সংকেত দিলে চালক সংকেত না মেনে পালানোর চেষ্টা করে। দুই কিলোমিটার দূরে থাকা বিজিবির আরেক টহল দলকে খবর দেয়া হলে তারা শক্ত অবস্থান নেয়।
এ সময় বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে অটোরিকশা থেকে গুলি চালানো হয়। বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়।
গোলাগুলি থেমে গেল ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়।
প্রথমে তাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক ইব্রাহিমকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে নিহত ব্যক্তির পরিচয় সম্পর্কে জানা যায়।
এ ছাড়া হাসপাতালে মৃত্যুর আগে ইব্রাহিম তার তিন সহযোগীর নাম বলে গেছেন। তারা হলেন- নুর হোসেন (৩০), মো. আবুল কাশেম (৩০) ও মো. তাহের (২৬)।
এ ঘটনায় মো. আহসান ও মো. ইমরান নামে বিজিবির দুই সদস্য আহত হয়েছেন তাদেরও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: