২০২০ সালেই আকাশে দেখা যাবে কৃত্রিম চাঁদ!

একে চন্দ্র, দুইয়ে পক্ষ আর বলা যাবে কিনা কে জানে! তবে নিশ্চিত গাওয়া যাবে– চাঁদের গায়ে চাঁদ লেগেছে। আসলে খুব তাড়াতাড়িই এক আকাশে দুই চাঁদ দেখা যেতে পারে। এই দ্বিতীয় চাঁদ তৈরি করছে চিন। এটাই হতে চলেছে প্রথম কৃত্রিম চাঁদ।
এখনও পর্যন্ত বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের যা দাবি তাতে বছর দুয়েকের মধ্যেই এই কাণ্ড করতে চলেছে চিন। রাস্তার বাতিস্তম্ভের পরিবর্তে এই চাঁদই পথে আলো দেবে। এতে বিদ্যুতের সাশ্রয় হবে বলে জানা যাচ্ছে। কম খরচে পথ দেখাবে চাঁদের আলো।
চিনা দৈনিকের খবরে জানা গিয়েছে, দক্ষিণ সিয়াচেন প্রদেশের চেংদু শহরে এই কৃত্রিম চাঁদের নির্মাণকাজ চলছে। ২০২০ সালে হবে পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ। আর সেটা যদি সফল হয় তবে এমন আরও তিনটি চাঁদ আকাশে পাঠাবে চিন। তিয়ান ফু নিউ এরিয়া সায়েন্স সোসাইটির তরফ থেকে সংস্থার কর্ণধার উ চানমেং সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সমস্ত পরীক্ষা সফল হলে ২০২২ সালে যে চাঁদটিকে পাঠানো হবে সেটিই স্থায়ী ভাবে আকাশে থেকে আলো দেবে ওই এলাকায়। যা সামাজিক ও বাণিজ্যিক দিক থেকে সম্ভাবনাময় এক দিককে তুলে ধরবে।
চিনা দৈনিকের দাবি, ওই নকল চাঁদ সূর্যের আলোকে প্রতিফলিত করে আলো দেবে। অবিকল সত্যি চাঁদের মতোই। আর এই কৃত্রিম চাঁদের আলো নাকি সত্যি চাঁদের আলোর থেকেও আট গুণ উজ্জ্বল হবে। আর তাতে বছরে প্রায় সতেরো কোটি ডলারের বিদ্যুৎখরচ কমবে। রাতের পথে কোনও স্ট্রিট ল্যাম্প জ্বালানোর প্রয়োজনই পড়বে না।

Leave a Reply

%d bloggers like this: