৩৩৩ কোটি টাকা নিয়ে পালালেন ৬ষ্ঠ স্ত্রী!

দুবাই-এর শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাখতুম এর প্রায় ৩৩৩ কোটি টাকা নিয়ে পালিয়েছেন তার ষষ্ঠ স্ত্রী প্রিন্সেস হাইয়া আল-হুসেইন। পালিয়ে জার্মানিতে আশ্রয় নিয়েছেন তিনি। সেখান থেকে স্বামীকে তালাক নোটিশও পাঠিয়েছেন প্রিন্সেস হাইয়া আল-হুসেইন।
যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানিয়েছে, ৩১ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড নিয়ে শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাখতুম-কে ছেড়ে গেছেন প্রিন্সেস হাইয়া। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ৩৩২ কোটি ৮২ লাখ ১৫ হাজার ৩০৭ টাকা।
সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যকেন্দ্র দুবাই-এর শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাখতুম একইসঙ্গে আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। তার ষষ্ঠ স্ত্রী প্রিন্সেস হাইয়া আল-হুসেইন জর্ডানের রাজা দ্বিতীয় আবদুল্লাহর বৈমাত্রেয় বোন।
আমিরাত থেকে যাওয়ার সময় নিজের দুই সন্তান ৭ বছর বয়সী ছেলে জায়েদ এবং ১১ বছর বয়সী মেয়ে আল-জালিলাকে সঙ্গে নিয়ে গেছেন প্রিন্সেস হাইয়া আল-হুসেইন। পালিয়ে জার্মানি পৌঁছানোর পর তিনি দেশটিতে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেছেন।
এদিকে ষষ্ঠ স্ত্রীর পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শেখ রাশিদ আল-মাখতুম। স্ত্রীর এমন কাজকে বিশ্বাসঘাতকতা হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন তিনি।
ডেইলি মেইল-এর খবরে বলা হয়েছে, দুবাই-এর শাসক এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী শেখ রাশিদ আল-মাখতুম তার স্ত্রীকে ফেরত দিতে জার্মানির প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। তবে তার এমন অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে বার্লিন। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক টানাপড়েন দেখা দিয়েছে।
২০০৪ সালে প্রিন্সেস হাইয়ার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন শেখ রাশিদ আল-মাখতুম। ১৫ বছর পর তার স্ত্রীর এভাবে পালিয়ে যাওয়া দুবাইয়ের শাসকের জন্য বড় বিপর্যয় হিসেবে প্রতীয়মান হচ্ছে।
এর আগে, গত বছর তার আরেক স্ত্রীর মেয়ে ৩৩ বছরের প্রিন্সেস লাতিফা বিনতে মুহাম্মাদ মাখতুম দেশ ছেড়ে পালানোর সময় ভারতীয় উপকূলে ধরা পড়েন। মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলছে, তাকে দুবাইয়ে আটকে রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: