ওষুধের আড়ালে আড়াই টন ভায়াগ্রা আটক!

ওষুধের কাঁচামালের আড়ালে আমাদানিকৃত সাড়ে ১২ কোটি টাকা মূল্যের আড়াই টন ভায়াগ্রার সর্ববৃহৎ চালান বুধবার আটক করেছে বেনাপোল কাস্টম হাউস।
এর আগে গত ২৪ জুলাই খাবারের ফ্লেভারের আড়ালে ভারত থেকে আমদানিকৃত ২০০ কেজি পাউডার ভায়াগ্রা আটক করেছিলো বেনাপোল কাস্টম।
বেনাপোল কাস্টম কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধুরী বুধবার রাইজিংবিডিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ভায়াগ্রা পাউডারের বৃহত্তম চালান বেনাপোলে আটক হয়েছে। বাংলাদেশ ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরীক্ষায় পাউডার যে ভায়াগ্রার তা প্রমাণিত হয়েছে। গত মাসে একইভাবে ২০০ কেজি পাউডার ভায়াগ্রা আটক হয়েছিল। এবারের চালান আকারে বিশাল, বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম। একটি সংঘবদ্ধ চক্র বাংলাদেশকে ভায়াগ্রা পাউডার চোরাচালানের রুট হিসেবে ব্যবহার করছে কি না খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে বিজিবিও উদ্বিগ্ন এবং বিজিবির মাধ্যমে বিএসএফ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। অন্যদিকে ভায়াগ্রার এ চালানটি তোড়জোড় করে খালাসের জন্য একটি শক্তিশালী মহল অপপ্রভাব খাটাতে চেষ্টা করে যাচ্ছে। গোপন সংবাদদাতার নিরাপত্তাসহ সার্বিক বিষয়েও কাস্টম হাউস উদ্বিগ্ন।
কাস্টম হাউস জানায়, মিথ্যা ঘোষণার মাধ্যমে ওষুধের বড় একটি চালান আসছে এমন গোপন সংবাদ থাকায় আমদানিকারকের দাখিলকৃত আমদানি দলিলাদি অতি সতর্কতার সাথে যাচাই করা হয়। আমদানিকারক কোন ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান না হওয়া সত্ত্বেও ওষুধের কাঁচামাল আমদানির করছে এতে সন্দেহ কিছুটা ঘনীভূত হয়। আমদানিকারকের নাম মেসার্স বায়েজিদ এন্টারপ্রাইজ, ৪৭/সি মিটফোর্ড রোড, ঢাকা। আর রপ্তানিকারক হচ্ছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আই বি ট্রেডার্স। সিএন্ডএফ এজেন্ট হচ্ছে সাইনী শিপিং সার্ভিসেস।
অভিযোগ রয়েছে ওষুধ উৎপাদনকারী শিল্প প্রতিষ্ঠানে কিছু বিশেষ ওষুধের কাঁচামাল হিসেবে ভায়াগ্রা ব্যবহৃত হয়। তবে ইদানিংকালে কিছু কোমল পাণীয় উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান কোমল পাণীয় উৎপাদনে এ পণ্য ব্যবহার করছে এমন অভিযোগও আছে। এছাড়া আটককৃত পণ্য ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক যৌন উত্তেজক ওষুধ তৈরিতেও ব্যবহার হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: