তরুণী সেজে জেল থেকে পালানোর চেষ্টা!

বন্দিজীবন কারো কি ভালো লাগে! শেকল ভাঙার আহ্বান তো কতজনের মুখেই শোনা যায়। দুর্ধর্ষ গ্যাং লিডার বেচারা হয়তো বা সেখান থেকেই পেয়েছেন অনুপ্রেরণা!
যেই ভাবা, সেই কাজ। ব্রাজিলের এক গ্যাং লিডার কারাগার থেকে পালানোর পরিকল্পনাও ফেঁদেছিলেন জম্পেশ। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। একটি ভিডিও অন্তর্জালে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে সেই গ্যাং লিডারের চতুরতা দেখে অনেকেরই চক্ষু চড়কগাছ।
ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ব্রাজিলের ক্লভিনো দ্য সিলভা নামের এক অপরাধী কারাগার থেকে পালানোর চেষ্টা করেন। এ লক্ষ্যে তিনি তাঁর মেয়ের ছদ্মবেশ ধারণ করেন। সিলভার ১৯ বছর বয়সী মেয়ে যখন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে আসেন, মেয়ের ছদ্মবেশ ধারণ করেন তিনি।
পরচুলা, লিপস্টিক, প্রসথেটিক মেকআপ নিয়ে মেয়েদের পোশাকে সিলভাকে দেখে সত্যিকারের কাহিনী বোঝা বেশ কঠিন ছিল।
রিও ডি জেনেরিওর জেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সিলভার ঘাবড়ে যাওয়া আচরণই তাদের সন্দেহ ঘনীভূত করেছিল।
গ্যাং লিডার সিলভার ফন্দি ছিল, ১৯ বছর বয়সী নিজ মেয়েকে তাঁর বদলে জেলে রেখে যাওয়া। পুলিশ এখন এ ঘটনায় সিলভার মেয়ের সংশ্লিষ্টতা খুঁজতে মাঠে নেমেছে।
কর্তৃপক্ষ এরই মধ্যে সিলভার ছবি প্রকাশ করেছে। সেখানে সিলভাকে একটি সিলিকনের মুখোশ, লম্বা ঘন পরচুলা, টাইট জিন্স ও একটি গোলাপি শার্ট পরিহিত দেখা যাচ্ছে। জেল কর্তৃপক্ষ প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সিলভা নিজেই তাঁর মুখোশ ও কিছু পোশাক খুলছেন। পাশাপাশি তাঁকে নিজের পূর্ণ নাম বলতেও শোনা যাচ্ছে।
জেল কর্তৃপক্ষ আরো জানিয়েছে, সিলভা ব্রাজিলের অন্যতম ভয়ংকর মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাসী বাহিনী ‘রেড কমান্ড’-এর অন্যতম সর্দার। এই বাহিনী রিও ডি জেনেরিওর বিশাল একটি অংশের মাদকব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে।
জেল পলায়নের ব্যর্থ চেষ্টার পর সিলভাকে উচ্চ নিরাপত্তাসম্পন্ন অন্য একটি কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: