বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে প্রশ্ন, জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ধমক!

আবারও সাংবাদিকদের শাসালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। দেশজুড়ে ডেঙ্গু আতঙ্কের মধ্যে ব্যক্তিগত বিদেশ সফর নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করতে চাইলে তিনি ধমক দিয়ে অন্য প্রসঙ্গে প্রশ্ন করতে বলেন। এসময় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে স্বাস্থ্য সচিব উপস্থিত সাংবাদিকদের আর প্রশ্ন না করার অনুরোধ জানিয়ে অন্য প্রসঙ্গে চলে যান।
বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) সচিবালয়ে স্বাস্থ্য সভাকক্ষে এ ঘটনা ঘটে।
এর আগে, ব্যক্তিগত সফরে মালয়েশিয়া গিয়ে সমালোচনার মুখে তড়িঘড়ি করে সফর সংক্ষিপ্ত করে বুধবার (৩১ আগস্ট) রাতে ঢাকায় ফিরে আসেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তবে এর পর থেকেই একের পর এক প্রশ্নের মুখে পড়ছেন তিনি।
এর মধ্যে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েও সকালে তা স্থগিত করে মন্ত্রণালয়। ধারণা করা হচ্ছে, ব্যক্তিগত ভ্রমণ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়াতেই পূর্বনির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনটি স্থগিত করেন মন্ত্রী।
পরে দুপুরে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলা ও নিয়ন্ত্রণে করণীয় ঠিক করতে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞ, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়রসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। বৈঠকে সংবাদকর্মীদের প্রবেশের অনুমতি না থাকলেও পরে প্রশ্ন না করার শর্তসাপেক্ষে তাদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে বলে জানান স্বাস্থ্য সচিব আসাদুল ইসলাম।
এসময় উপস্থিত সাংবাদিকদের চাপে ঢাকা সিটি করপোরেশনের দুই মেয়রকে পাশে নিয়ে কেবলমাত্র ডেঙ্গু পরিস্থিতির সবশেষ তথ্য তুলে ধরে চুপ হয়ে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। ডেঙ্গু আতঙ্কের মধ্যে তার বিদেশ সফর নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করতে গেলেই মন্ত্রী ধমক দিয়ে থামিয়ে দেন। অন্য প্রসঙ্গে প্রশ্ন করতে বলেন।
এসময় বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নীতিমালা অনুযায়ী ডেঙ্গু পরিস্থিতি মহামারী ঘোষণা করা যায় কি না— মন্ত্রীকে এমন প্রশ্ন করা হলেও জবাব দেন স্বাস্থ্য সচিব। তিনি বলেন, এ প্রশ্নটি জবাব দেওয়ার মতো নয়। এটি টেকনিক্যাল বিষয়।
এর আগে, মধ্য জুলাই থেকেই সারাদেশে ডেঙ্গু জ্বরের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে থাকে। বিশেষ করে রাজধানীতে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ছাড়াতে থাকে অতীতের রেকর্ড। এ পরিস্থিতিতেই সবার অগোচরে গত ২৭ জুলাই ব্যক্তিগত ভ্রমণে মালয়েশিয়া যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। দুই দিন পর ৩০ জুলাই তা জানাজানি হয় এবং গণমাধ্যমগুলোতে এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়।
ডেঙ্গু আতঙ্কের মধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সপরিবারে বিদেশ ভ্রমণের সংবাদ অনলাইন-অফলাইনে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয়। পরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, ৪ আগস্ট দেশে ফেরার কথা থাকলেও ভ্রমণ সংক্ষিপ্ত করে বুধবার (৩১ জুলাই) রাতেই দেশে ফিরছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার তিনি সচিবালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হবেন বলেও জানানো হয়। সে অনুযায়ী বুধবার মন্ত্রী দেশে ফিরলেও বৃহস্পতিবারের ব্রিফিং স্থগিত করেন। পরে মেয়র-বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকের ফাঁকে গণমাধ্যমকর্মীরা তার বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে প্রশ্ন করতে চাইলেও ধমক দিয়েই থামিয়ে দিলেন তিনি।
সাংবাদিকদের ধমকানোর রেকর্ড অবশ্য জাহিদ মালিকের নতুন নয়। এর আগে সরকারের আগের মেয়াদে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী থাকা অবস্থাতেও তিনি সচিবালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের ধমকাধমকি দিয়েছিলেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: