এশিয়া হিউম্যান রাইটস্ পিস এ্যাওয়ার্ড পেলেন বান্দরবানের নারী নেত্রী ফাতেমা পারুল

নুর এমডি শাওন মিন্টু,লামা::: জেলা পরিষদের সফল সদস্য ও সমাজ সেবিকা হিসেবে বিশেষ অবদান রাখায় বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ফাতেমা পারুলকে এশিয়া হিউম্যান রাইটস্ পিস এ্যাওয়ার্ড ১৯ সম্মাননা দিয়েছেন এশিয়া হিউম্যান রাইটস্ ফাউন্ডেশন নামের একটি সংস্থা। ঢাকার শাহবাগস্থ জাতীয় পাবলিক লাইব্রেরীর ভিআইপি সেমিনার হলরুমে বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ‘সার্বজনীন মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় আমাদের করনীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভা, গুণীজন সংবর্ধনা ও পথশিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরন অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা দেয়া হয়। শনিবার বিকেলে সংস্থার মহাসচিব আর. কে. রিপনের উপস্থাপনায় ও সভাপতি এ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম সরদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মিজানুর রহমান। এতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন, ভাষা সৈনিক লায়ন শামসুল হুদা, অধ্যাপক ড.এ.এন.এম মেশকাত উদ্দীন, অধ্যাপক মো. আহসান উল্লাহ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের অনুষ্ঠান উদ্যাপন কমিটির সমন্বয়কারী তরুণ সাংবাদিক এসএম হান্নান শাহসহ বিভিন্ন দেশ বরণ্য কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, বুদ্বিজীবি, সমাজ সেবক, রাজনীতিবিদ প্রমুখ। প্রসঙ্গত, ফাতেমা পারুল নব জাগরণ মহিলা উন্নয়ন সমিতির মাধ্যমে মানব সেবা, নির্যাতিত, নিপীড়িত, অবহেলিত পিছিয়ে পড়া নারী জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে কাজ করে আসছেন। এসব কাজে স্বীকৃতি স্বরুপ ইতিমধ্যে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক শ্রেষ্ঠ জয়িতাও নির্বাচিত হন ফাতেমা পারুল। তিনি, বান্দরবানের লামা উপজেলার চাম্পাতলী গ্রামের শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হকের মেয়ে ও পশ্চিম রাজবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা আবদুল আজিজের স্ত্রী। এছাড়া রাজনৈতিকভাবে তিনি উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০০১ সালে লামা পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে অংশ গ্রহন করে ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হন ফাতেমা পারুল।

Leave a Reply

%d bloggers like this: