কোভিড-১৯ ভাইরাসে আপনার (হাঁ, আপনার) মারা যাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু?

Stay Home. Stay Safe. Save Lives.
#COVID19

বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তের হার ভিন্ন ভিন্ন। এ অবস্থায় আপনার মনে এই প্রশ্নের উদ্রেক হতে পারে যে, আপনি এ রোগে আক্রান্ত হলে মারা যাওয়ার আশঙ্কা কতটুকু। এর কোন সহজ উত্তর নেই। কিন্তু কিছু বিষয় রয়েছে, যেগুলোর কারণে মৃত্যুর হার কমবেশি হতে পারে।
আপনার বয়স কত?
সাধারণভাবে এটা এখন সবারই জানা হয়ে গেছে যে, যত বয়স বেশি, এই রোগে আক্রান্ত হলে মৃত্যুর ঝুঁকি তত বেশি। সারা বিশ্বে রোগ ছড়িয়ে পড়েছে এবং আক্রান্তের সংখ্যা প্রতি ঘন্টায় বাড়ছে। সে কারণে চীনের প্রাপ্ত পরিসংখ্যান খতিয়ে দেখাটা এখন বেশি দরকার।
চায়নিজ সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যাণ্ড প্রিভেনশান (সিসিডিসি) জানিয়েছে যে, ৮০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুর হার ১৪.৮ শতাংশ, সত্তরোর্ধদের মধ্যে মৃত্যুর হার ৮ শতাংশ, ষাটোর্ধদের মধ্যে এই হার ৩.৬ শতাংশ এবং ৫০-৫৯ বছর বয়সীদের মধ্যে এই হার ১.৩ শতাংশ। সৌভাগ্যের দিক হলো, ৪৯ বছরের কম বয়সী সকলের মধ্যে মৃত্যুর হার ০.৫ শতাংশ।
রোগপূর্ব অবস্থা? ধূমপায়ী?
সকল মৃত্যুর ঘটনায় যেটি দেখা গেছে, যাদের আগে থেকে বিভিন্ন রকমের রোগ ব্যাধি রয়েছে, তাদের মধ্যে মৃত্যুর হার বেশি।
সিসিডিসির পরিসংখ্যানে দেখা গেছে যাদের হৃদরোগ রয়েছে, তাদের মৃত্যু হার ১০.৫ শতাংশ, এবং যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে, তাদের মৃত্যুহার ৭.৩ শতাংশ। যাদের শ্বাসযন্ত্রের রোগ রয়েছে বা হাইপারটেনশান রয়েছে, তাদের মৃত্যু হার ৬ শতাংশ, আর ক্যান্সার রোগীদের মৃত্যুর হার ৫.৬ শতাংশ। এই সব রোগ থাকলে আপনার এখনই সতর্ক হওয়া উচিত এবং নিজ থেকে কোয়ারেন্টাইনে থাকা উচিত।
আপনি কি পুরুষ?
চীনা পরিসংখ্যান অনুযায়ী পুরুষের জন্য খারাপ খবর হলো কোভিড-১৯ রোগে মারা যাওয়ার মাত্রা পুরুষের বেশি। পুরুষের মারা যাওয়ার মাত্রা ২.৮ শতাংশ যেখানে মহিলাদের হার হলো ১.৭ শতাংশ। আক্রান্ত হওয়ার দিক থেকেও পুরুষরা বেশি ঝুঁকিতে আছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৫১ শতাংশ হলো পুরুষ।
কোথায় বাস করেন আপনি?
বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় মৃত্যুর হার ভিন্ন রকম। ইটালিতে সবচেয়ে বেশি সাত শতাংশ। কিন্তু এর অর্থ এটা নয় যে, ইটালিয়দের এই রোগে মারা যাওয়ার আশঙ্কা বেশি।
ইটালির মৃত্যুর হার বেশি হওয়ার কারণ হলো দেশের বয়স্ক জনসংখ্যা বেশি। অন্যদিকে জার্মানিতে মধ্যম বয়সী মানুষ বেশি এবং সেখানে মৃত্যুর হার মাত্রা ০.২%। একইভাবে, ইটালিতে ধূমপায়ী বেশি হওয়ায় বেশি মানুষ মরছে বলে যে ধারণা করা হচ্ছে, সেটিও সত্যি নয়, কারণ চীন ও দক্ষিণ কোরিয়াতেও ধূমপায়ীর হার বেশি।
আসল মৃত্যু হার: ৭%, ৩.৪%, বা তার চেয়েও কম?
সঙ্কটের সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যখন কেটে যাচ্ছে, দেখা যাচ্ছে সার্বিক মৃত্যু হার অনেকটাই কম। কারণ বহু মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরও তাদের লক্ষণ প্রকাশ পায়নি বা অতি সামান্য লক্ষণ দেখা দিয়েছে এবং সেগুলো নিয়ে কখনই পরীক্ষা করা হয়নি।

Leave a Reply

Stay Home. Stay Safe. Save Lives.
#COVID19

%d bloggers like this: