‘নাম বিভ্রাটে’ জামিন পান জি কে শামীম

অস্ত্র ও মাদকের মামলায় বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা ও ঠিকাদার জি কে শামীমকে দেয়া জামিন বাতিল করে দিয়েছে হাইকোর্ট। এক মাস আগে পাওয়া জামিনের খবর প্রকাশের একদিনে মাথায় জি কে শামীমের জামিন বাতিল করেন। ‘নাম বিভ্রাটের’ কারণে এমনটা হয়েছে বলেও বিচারকগণ উল্লেখ করেন।
৮ মার্চ, রবিবার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ এদিন স্বপ্রণোদিত হয়ে অস্ত্র মামলায় শামীমের ছয় মাসের জামিন আদেশ প্রত্যাহার (রিকল) করেন।
এ সময় বিচারকগণ জানান, ‘নাম বিভ্রাটে’ হয়ত বুঝতে সমস্যা হয়েছিল। এরপর বিচারপতি মো রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর হাই কোর্ট বেঞ্চও মাদক মামলায় জি কে শামীমের জামিন আদেশ প্রত্যাহার করে নেয়।
অস্ত্র মামলায় এদিন আদালতে শামীমের পক্ষে ছিলেন মমতাজ উদ্দিন মেহেদী। আর রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে উপস্থিত ছিলেন- ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. ফজলুর রহমান খান।
দুপুরে আদালত বসলে শুরুতেই এফ আর খান বলেন, ‘এই মামলায় (অস্ত্র মামলায়) জামিন আবেদনকারীর নাম লেখা আছে এস এম গোলাম কিবরিয়া। কিন্তু আদালতের ওই দিনের (৬ ফেব্রুয়ারি) কার্যতালিকায় নাম ছিলো শুধু এস এম গোলাম।’
জবাবে জি কে শামীমের আইনজীবী মেহেদী বলেন, ‘জামিন আদেশের দিন ওইসময় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এফ আর খান আদালতেই ছিলেন না।’
দুই পক্ষের কথা শোনার পর বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক বলেন, ‘কার্যতালিকায় নামের বিভ্রাট আছে। এ কারণে হয়তো বিভ্রান্তি হয়েছে। আমাদের হয়ত বুঝতে সেদিন ভুল হয়েছে। তাই আমরা জামিনের অর্ডারটি রিকল (প্রত্যাহার ) করলাম।’
এর আগে জি কে শামীমের জামিনের বিষয়টি রাষ্ট্রপক্ষের জানা নেই বলে মন্তব্য করেছিলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফজলুর রহমান। কিন্তু রবিবার জামিন আদেশ প্রত্যাহার হওয়ার পর তিনি বলেন, ‘নাম নিয়ে বিভ্রাট হয়েছে, রাষ্ট্রপক্ষ হয়ত তখন বুঝতে পারেনি।’

Leave a Reply

%d bloggers like this: