বাংলাবাজার ইয়াবা ছিনতাইয়ের ঘটনায় বীর প্রতীক পুত্র খোরশেদুল হকের বিবৃতি

Stay Home. Stay Safe. Save Lives.
#COVID19

গত ২৭ জুলাই সোমবার বিকেলে বাংলাবাজার ঘটে যাওয়া একটি ছোট্র ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশাল আকার ধারন করেছে এলাকায়। বাংলাবাজার ইয়াবা ছিনতাই শীর্ষক নিউজটি বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত হওয়ার পর বেশ আলোচনা সমালোচনা চলছে ঘটনাকে কেন্দ্র করে। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে পারিবারিক ইস্যুতে পরিনত হয়েছে।
ঘটনার একটি অংশে খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হকবীর প্রতীক পুত্র জেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কমিউনিটি পুলিশিং ঝিলংজা ইউনিয়ন সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদুল হককে জড়িয়ে মিথ্যাচার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।
তিনি খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ চট্রগ্রাম বিভাগীয় সদস্য সচিবও। তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত আছেন এবং কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী।
শ্রমিকলীগ নেতা খোরশেদুল হক জানান, বিকেলের দিকে স্থানীয় একজন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী হতে দুটি ছেলে ইয়াবা ক্রয় করে চলে যাওয়ার পথিমধ্যে স্থানীয় জনসাধারন তাদের আটক করে। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গেলে তখন উপস্থিত ২০ থেকে ৩০ জন স্থানীয় জন সাধারনের সম্মুখে আমি ভিডিও ধারন করি। আমি আমার ব্যবহত ফেসবুক আইডিতে দুটি ভিডিও আপলোড করি। মূলত প্রতিবাদ করেছি ইয়াবা কারবারীদের বিরুদ্ধে। প্রথম ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে শাহজান নামের একজন খুচরা ইয়াবা বিক্রেতা হতে দুই জন যুবক খুচরা ইয়াবা গ্রহন করছে। পরে স্থানীয় কয়েকজন যুবক ক্রেতা দুই ইয়াবা সেবনকারীকে আটক করে। তাদের হাতে পাওয়া যায়২পিছ ইয়াবা। আমি আমার মোবাইলে তা ধারন করি ও তাদের মুখ জবান রেকর্ড করি। ২য় ভিডিওতে তা স্পষ্ট প্রমান রয়েছে। উপস্থিত এলাকার লোকজন তাদের উত্তম মাধ্যম দিয়ে তাদের পরিবারের হাতে ছেড়ে দেয়। আমি ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বাসায় পৌছে ফেসবুকে ভিডিও ও ছবি আপলোড দিয়ে ইয়াবা কারবারী ও তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে প্রতিবাদ করি। তারই ধারাবাহিকতায় সন্ধ্যায় হঠাৎ চোখে পড়ে বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে আমাকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। এবং সেখানে ১লাখ পিচ ইয়াবা ছিনতাই মর্মে লিখা হয়েছে যা সম্পুর্ন মিথ্যা, ভুয়া,বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।
আদতে, আমার পরিবারের সাথে দীর্ঘ বছরের শত্রুতা রয়েছে ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু সুলতানের পরিবারের সাথে। যা বাংলাবাজার এলাকার সর্বস্তরের মানুষ জানে। আমার ও আমার পরিবারের মান ক্ষুন্ন করতে তারা সাংবাদিক ভাইদের ও প্রশাসনকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে। আমি প্রশাসন ও সাংবাদিক ভাইদের অনুরোধ করছি আপনারা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করুন ও লিখুন আমার কোন আপত্তি নাই। আমার ফেসবুক ওয়ালে ও ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে আসল ঘটনা উদঘাটন করার অনুরোধ জানাচ্ছি। প্রশাসনের চলমান শুদ্ধি অভিযানের পক্ষে আমি সর্বদা ছিলাম এখনো আছি। আমি চ্যালেন্জ করে বলছি আমার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সর্ব আদালতে এই পর্যন্ত কোন বেড রেকর্ড নাই। আমার বিরুদ্ধে একটি চক্র উঠে পড়ে লেগেছে তাই সবার প্রতি অনুরোধ কেউ বিভ্রান্ত হবেন না। পরবর্তী

বাংলাবাজার ইয়াবা ছিনতাইয়ের ঘটনায় বীর প্রতীক পুত্র খোরশেদুল হকের বিবৃতি
নিজস্ব প্রতিনিধি: গতকাল ২৭ জুলাই সোমবার বিকেলে বাংলাবাজার ঘটে যাওয়া একটি ছোট্র ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশাল আকার ধারন করেছে এলাকায়। বাংলাবাজার ইয়াবা ছিনতাই শীর্ষক নিউজটি বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত হওয়ার পর বেশ আলোচনা সমালোচনা চলছে ঘটনাকে কেন্দ্র করে। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে পারিবারিক ইস্যুতে পরিনত হয়েছে।
ঘটনার একটি অংশে খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হকবীর প্রতীক পুত্র জেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কমিউনিটি পুলিশিং ঝিলংজা ইউনিয়ন সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদুল হককে জড়িয়ে মিথ্যাচার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।
তিনি খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ চট্রগ্রাম বিভাগীয় সদস্য সচিবও। তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত আছেন এবং কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী।
শ্রমিকলীগ নেতা খোরশেদুল হক জানান, বিকেলের দিকে স্থানীয় একজন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী হতে দুটি ছেলে ইয়াবা ক্রয় করে চলে যাওয়ার পথিমধ্যে স্থানীয় জনসাধারন তাদের আটক করে। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গেলে তখন উপস্থিত ২০ থেকে ৩০ জন স্থানীয় জন সাধারনের সম্মুখে আমি ভিডিও ধারন করি। আমি আমার ব্যবহত ফেসবুক আইডিতে দুটি ভিডিও আপলোড করি। মূলত প্রতিবাদ করেছি ইয়াবা কারবারীদের বিরুদ্ধে। প্রথম ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে শাহজান নামের একজন খুচরা ইয়াবা বিক্রেতা হতে দুই জন যুবক খুচরা ইয়াবা গ্রহন করছে। পরে স্থানীয় কয়েকজন যুবক ক্রেতা দুই ইয়াবা সেবনকারীকে আটক করে। তাদের হাতে পাওয়া যায়২পিছ ইয়াবা। আমি আমার মোবাইলে তা ধারন করি ও তাদের মুখ জবান রেকর্ড করি। ২য় ভিডিওতে তা স্পষ্ট প্রমান রয়েছে। উপস্থিত এলাকার লোকজন তাদের উত্তম মাধ্যম দিয়ে তাদের পরিবারের হাতে ছেড়ে দেয়। আমি ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বাসায় পৌছে ফেসবুকে ভিডিও ও ছবি আপলোড দিয়ে ইয়াবা কারবারী ও তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে প্রতিবাদ করি। তারই ধারাবাহিকতায় সন্ধ্যায় হঠাৎ চোখে পড়ে বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে আমাকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। এবং সেখানে ১লাখ পিচ ইয়াবা ছিনতাই মর্মে লিখা হয়েছে যা সম্পুর্ন মিথ্যা, ভুয়া,বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।
আদতে, আমার পরিবারের সাথে দীর্ঘ বছরের শত্রুতা রয়েছে ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু সুলতানের পরিবারের সাথে। যা বাংলাবাজার এলাকার সর্বস্তরের মানুষ জানে। আমার ও আমার পরিবারের মান ক্ষুন্ন করতে তারা সাংবাদিক ভাইদের ও প্রশাসনকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে। আমি প্রশাসন ও সাংবাদিক ভাইদের অনুরোধ করছি আপনারা সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করুন ও লিখুন আমার কোন আপত্তি নাই। আমার ফেসবুক ওয়ালে ও ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে আসল ঘটনা উদঘাটন করার অনুরোধ জানাচ্ছি। প্রশাসনের চলমান শুদ্ধি অভিযানের পক্ষে আমি সর্বদা ছিলাম এখনো আছি। আমি চ্যালেন্জ করে বলছি আমার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সর্ব আদালতে এই পর্যন্ত কোন বেড রেকর্ড নাই। আমার বিরুদ্ধে একটি চক্র উঠে পড়ে লেগেছে তাই সবার প্রতি অনুরোধ কেউ বিভ্রান্ত হবেন না। পরবর্তী এই রকম ভিত্তিহীন কোন নিউজ প্রকাশিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান খোরশেদুল হক।

Leave a Reply

Stay Home. Stay Safe. Save Lives.
#COVID19

%d bloggers like this: