মিয়ানমারে খনিতে ভূমিধসে নিহত ১১৩

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে একটি জেড পাথরের খনিতে ভূমিধসে অন্তত শতাধিক মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। কাতারের সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানায়।
বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সকালে কাচিন রাজ্যের জেড সমৃদ্ধ হপাকান্ত এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ভারী বর্ষণের কারণে ভূমিধস হয়েছে বলে ফেসবুকে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস দফতর।
১১৩ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়ে তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘জেড খনির শ্রমিকরা মাটির নিচে চাপা পড়েছেন। এখন পর্যন্ত ১১৩ জনের ‍মৃতদেহ পাওয়া গেছে, উদ্ধার প্রক্রিয়া এখনও চলছে।’
তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক স্থানীয় কর্মকর্তা জানান, শতাধিক মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আরও মৃতদেহ কাদার নিচে চাপা পড়ে আছে। সংখ্যা বাড়ছেই।’
৩৮ বছর বয়সী খনি শ্রমিক মাউং খাইং বলেছেন, ‘দৌড়াও, দৌড়াও চিৎকার শুনলাম। এক মিনিটের মধ্যে নিচে (পাহাড়ের) থাকা সবাই গায়েব হয়ে গেলো। অনেকে সাহায্যের জন্য চিৎকার করছিল, কিন্তু কেউ তাদের সাহায্য করতে পারেনি।’
ফেসবুক পেজে পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, একটি অনুসন্ধানকারী ও উদ্ধারকারী দল উপত্যকা দিয়ে দুর্ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন।
মিয়ানমারে মে থেকে অক্টোবরে বৃষ্টির মৌসুমে এই এলাকায় এ ধরনের দুর্ঘটনা প্রায় হয়ে থাকে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সবুজ রত্নখচিত পাথর তুলতে যান হতদরিদ্র শ্রমিকরা।
গত বছর এপ্রিলে হপাকান্তের খনি এলাকার একটি পুকুরের উঁচু পাড় ধসে ৫৫ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: