টেকনাফবাসীর কলঙ্কমুক্ত হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ

সমুদ্রকন্ঠ সম্পাদক প্রফেসর মঈনুল হাসান পলাশ তার ফেসবুক আইডিতে টেকনাফের মানুষ ও তাদের কলঙ্ক নিয়ে লিখেছেন। পাঠকের সুবিধার্থে নিছে হুবহু তুলে ধরা হল।

টেকনাফ, সারাদেশের মানুষের কাছে আলোচিত এক জায়গার নাম।
টেকনাফের অনেক মানুষ এখন আক্ষেপ করে বলেন,নিজের জন্মস্থানের পরিচয় দিতে লজ্জা পাই!
আর একের পর এক চেকপোস্টে চরম বিব্রত হওয়া এখন টেকনাফের মানুষের জন্য স্বাভাবিক ব্যাপার।
চোরাচালানের কলংক ছিলো বহু পুরনো বিষয়।
কিন্তু ইয়াবা কলংক যেনো টেকনাফবাসীকে পুরো দেশের কাছে “ভিলেন” বানিয়ে দিয়েছে।
টেকনাফের সব মানুষ কি ইয়াবা কারবারি?
এটা কি সম্ভব?
এতোদিন ধরে টেকনাফে “মাফিয়া”বাজি চলেছে।
কিন্তু এখন এক অভাবনীয় সুর্বণসুযোগ টেকনাফবাসীর সামনে।
ইয়াবা কলংক মোচনের সুযোগ!
ইয়াবা প্রতিরোধ নাগরিক কমিটি করুন।
ইয়াবা কারবারিদের পরিচয় প্রকাশ্যে তুলে ধরুন।
সামাজিকভাবে বয়কট করুন। প্রতিরোধ করুন।
আর অবহেলিত টেকনাফের উন্নয়নের দাবীতে জোরালো সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলুন।
টেকনাফ শহরকে নিজেদের উদ্যোগে সুন্দর করে তুলুন।
পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ও নাগরিক শৃংখলা মেনে চলুন।
মোটকথা,টেকনাফে দৃশ্যমান পরিবর্তন হোক।
যেনো বাইরে থেকে যে কেউ গেলে বলতে পারে….
টেকনাফ আর আগের টেকনাফ নেই!

Leave a Reply

%d bloggers like this: