সমুদ্র তলদেশে চীনা সাবমেরিন স্টেশন, ধরা পড়লো উপগ্রহ চিত্রে

বিশ্বজুড়ে প্রভাব বিস্তারের অংশ হিসেবে চীন সব ক্ষেত্রেই তার শক্তি বাড়ানোর চেষ্টা করে চলেছে। অর্থনীতি, রাজনীতির পাশাপাশি সমুদ্রেও যার চিহ্ণ রাখতে চলেছে দেশটি। সাম্প্রতিক এক ভূ-উপগ্রহ চিত্রে ধরা পড়েছে এমনই এক দৃশ্য। দেশটি দক্ষিণ চীন সাগরে সমুদ্র তলদেশে এমন একটি বেজমেন্ট তৈরি করেছে, যেখানে তাদের সাবমেরিনগুলি লুকিয়ে রাখা যেতে পারে।
এই সাবমেরিন বেজমেন্টটি চীনের হেনান দ্বীপের উলিয়ান নেভাল বেজের কাছে অবস্থিত। সেখানে একটি উঁচু পাহাড়ের পাদদেশেই সমুদ্র। সমুদ্রের নীচে নির্মিত বেজমেন্টে চীন চাইলেই অসংখ্য সাবমেরিন লুকিয়ে রাখতে পারে।
১৮ অগস্ট রেডিও ফ্রি এশিয়া প্রথম এই ছবি টুইট করে। সেই ছবিতে দেখে যাচ্ছে, একটি সাবমেরিন উলিয়ান নেভাল বেসের বেজমেন্টের দিকে যাচ্ছে, তারপরেই ছড়িয়েছে জল্পনা।
এমনকি ওই এলাকার আশেপাশে দুটি যুদ্ধজাহাজও দেখা যায়। মনে করা হচ্ছে সেগুলি ০৯৩ ধরনের সাবমেরিন। এই ০৯৩ সাবমেরিন ৩ রকমের হয়। চীনের কাছে এমন অনেকগুলি সাবমেরিন রয়েছে; যা পারমাণবিক অস্ত্র, টর্পেডো এবং ক্ষেপণাস্ত্র দ্বারা সজ্জিত।
সারা বিশ্বের বেশ কিছু প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা প্রায়শই বলেন, চীন তার ক্ষেপণাস্ত্র এবং অস্ত্রগুলি বেজমেন্টে লুকিয়ে রাখে। তবে বেজমেন্টে লুকিয়ে থাকা চীনা সাবমেরিনের ছবি প্রথমবারের জন্য সামনে এসেছে বলে দাবি করা হচ্ছে।
উলিয়ান নেভাল বেজটি হেনান দ্বীপের দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত। অবস্থা এমন যে, যুক্তরাষ্ট্রও চীনের এই নৌ ঘাঁটির ওপর নজর রেখেছে। বর্তমানে এমনিতেই তাইওয়ান ইস্যুতে উত্তেজক পরিস্থিতি রয়েছে চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। এছাড়া দক্ষিণ চীন সাগর নিয়েও দেশ দু’টির বাকযুদ্ধ চলমান।

Leave a Reply

%d bloggers like this: