ওএসডি হলেন ইউএনও ওয়াহিদা, স্বামীকেও বদলি

আলোচিত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমকে তাঁর কর্মস্থল ঘোড়াঘাট থেকে বদলি করা হয়েছে। সেইসাথে বদলি করা হয়েছে তার স্বামী রংপুরের পীরগঞ্জের ইউএনও মেজবাউল হোসেনকেও।
বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব আলিয়া মেহের স্বাক্ষরিত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।
প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার স্বামী মো. মেজবাউল হোসেনকেও ঢাকায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগে সিনিয়র সহকারী সচিব হিসেবে বদলি করা হয়।
গত ২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা ইউএনওর সরকারি বাসায় ঢুকে ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলীকে হাঁতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। বর্তমানে ঢাকার আগারগাঁওয়ে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালে ওয়াহিদা খানমের চিকিৎসা চলছে।
এই ঘটনায় একাধিক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হলেও সর্বশেষ পুলিশের তদন্ত বলছে, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের অফিসের চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারী এই হামলা চালিয়েছেন। ওই কর্মচারীর নাম মো. রবিউল ইসলাম। তাকেও পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
মামলায় এ পর্যন্ত আটক করা হয়েছে কমপক্ষে ৩০ জনকে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অধিকাংশকেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ৭ দিনের রিমান্ড শেষে আসাদুল, নবীরুল এবং সান্টু নামে ৩ জন জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।
ওয়াহিদা খানম ৩১তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা। তার স্বামী মেজবাউল হোসেনও একই ব্যাচে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: