কক্সবাজার জেলায় ৫৯ হাজার ৪৭১ একর বনভূমি অবৈধ দখলে

দেশের দুই লাখ ৮৭ হাজার ৪৫২ একর সরকারি বনভূমি ৯০ হাজার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের দখলে রয়েছে। সবচেয়ে বেশি বনভূমি অবৈধ দখলে আছে কক্সবাজার জেলায়, যার পরিমাণ প্রায় ৫৯ হাজার ৪৭১ একর। দখলদার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের তালিকা মন্ত্রণালয়ের কাছে চেয়েছে। তালিকা পাওয়ার পর তা প্রকাশ করবে সংসদীয় কমিটি।
সোমবার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় বন বিভাগের জবরদখলকৃত জমি উদ্ধারে আরও তৎপর হতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
সভায় ঢাকা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও সিলেট বন বিভাগের জবরদখলকৃত জমি, উদ্ধার অভিযানের সংখ্যা এবং জবরদখলকৃত জমি উচ্ছেদের পরিমাণ তুলে ধরা হয়।
সভায় জবরদখলকৃত যাবতীয় জমির তালিকা, ডকুমেন্ট আগামী বৈঠকে উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।
সভায় জানানো হয়, বন অধিদপ্তরের ও বনভূমির নিরাপত্তায় সরাসরি জড়িত কর্মচারীদের আর্থিক নিরাপত্তা ও কর্মে উৎসাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইতিমধ্যে সুন্দরবন পূর্ব ও পশ্চিম বন বিভাগের ১১ থেকে ২০ গ্রেডভুক্ত কর্মচারীদের জন্য মূল বেতনের ৩০ ভাগ হিসেবে ঝুঁকিভাতা প্রচলন করা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য এলাকা যেখানে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয় সে এলাকার কোন কর্মচারী দায়িত্ব পালনরত থাকলে তাদের ক্ষেত্রেও ঝুঁকি ভাতা দেয়া যায় কি না সে বিষয়েও মন্ত্রণালয়ে বিবেচনাধীন রয়েছে।
সভায় কমিটির সদস্য পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, মো. রেজাউল করিম বাবলু, খোদেজা নাসরিন আক্তার হোসেন এবং মো. শাহীন চাকলাদার অংশগ্রহণ করেন। সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: