করোনায় নারীর চেয়ে পুরুষের অ্যা‌ন্টিব‌ডি দ্রুত কমে

করোনায় আক্রান্ত নারীদের তুলনায় পুরুষদের দেহের অ্যান্টিবডির মাত্রা দ্রুত কমে। ফ্রান্সের স্ট্রাসবার্গ ইউনিভার্সিটি হাসপাতাল পরিচালিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
ঐতিহাসিকভাবেই অভিন্ন রোগের ক্ষেত্রে সবার জন্য প্রযোজ্য এমন চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য গবেষণা করা হয়ে থাকে। তবে করোনার সংক্রমণের ক্ষেত্রে কিছু ব্যতিক্রম ধরা পড়েছে। দেখা গেছে, পুরুষদের তুলনায় নারীদের করোনায় আক্রান্তের হার কম। একইসঙ্গে করোনায় আক্রান্ত নারীদের তুলনায় পুরুষদের মৃত্যুর হার প্রায় দ্বিগুণ।
গবেষণায় দেখা গেছে, ১৭২ দিনে দুটি ক্ষেত্রে তিনটি ভিন্ন পরীক্ষায় অ্যান্টিবডির মাত্রা পরিমাপ করা হয়েছে। প্রথম ধাপের রক্তের নমুনা পরীক্ষায় দেখা গেছে, ৫০ বছরের বেশি বয়সী এবং বডি ম্যাস ইনডেক্স ২৫ এর বেশি থাকা পুরুষদের দেহে অ্যান্টিবডির মাত্রা সর্বোচ্চ পাওয়া গেছে।
দ্বিতীয় নমুনায় দেখা গেছে, বয়স ও বডি ম্যাস ইনডেক্স যথাযথ থাকলেও করোনায় আক্রান্ত নারীদের তুলনায় পুরুষদের অ্যান্টিবডির মাত্রা দ্রুত কমছে।
স্ট্রাসবার্গ ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের ভাইরোলজি বিভাগের প্রধান সামিরা ফাফি-ক্রিমার বলেন, ‘অন্যান্য গবেষণায় দেখা গেছে, তীব্র পর্যায়ে নারীদের তুলনায় পুরুষদের অ্যান্টিবডি সাড়া দেওয়ার মাত্রা অনেক বেশি। তবে প্রথম পর্যায়ে পুরুষদের অ্যান্টিবডি সাড়া দেওয়ার মাত্রা বেশি হলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এর মাত্রা দ্রুত কমতে থাকে, একই সময় নারীদের মাত্রা অনেক বেশি স্থিতিশীল থাকতে দেখেছি আমরা। আমি একে মেয়েদের ক্ষমতার নতুন প্রকাশ বলবো।’

Leave a Reply

%d bloggers like this: