1. samudrakantha@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক ও প্রকাশক
  2. aimrashed20@gmail.com : Amirul Islam Rashed : Amirul Islam Rashed

তরমুজ আকাশছোঁয়া দাম টেকনাফে!

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩৭ Time View
শেখ রাসেল, টেকনাফ::
উপজেলার বিভিন্ন বাজারে হঠাৎ করে তরমুজের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়ে গেছে। সরকারিভাবে তরমুজের দাম নির্ধারণ না থাকায় দোকানিরা নিজেদের মতো করে দাম হাঁকাচ্ছেন এবং আদায় করে নিচ্ছেন।  এতে দিশেহারা হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ।
সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারের বিভিন্ন স্থানের ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা তরমুজ সাজিয়ে রেখেছেন। এরমধ্যে দেশীয় তরমুজসহ বিভিন্ন দেশের জাতের তরমুজ সংখ্যাই বেশি। পাকা তরমুজের পাশাপাশি গাছ থেকে ছিড়ে আনা আধা-পাকা তরমুজও রাখা হয়েছে। তবে সেগুলো মজুদের পাশাপাশি কেমিক্যালের মাধ্যমে পাকানোর পর বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে বলে ক্রেতাদের অভিযোগও উঠেছে।
ছোট সাইজের একটি তরমুজ ৫০ থেকে ১৫০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। আবার মাঝারি সাইজের প্রতি পিস ১৫০ টাকা থেকে ২০০/২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বড় সাইজের প্রতি পিস তরমুজ ৩০০/৪০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ দরে হাঁকিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে বাজারের এসব তরমুজ অধিকাংশই কৃত্রিমভাবে পাকানো ও নিম্নমানের  বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।
টেকনাফ পৌর শহরের বাজারে তরমুজ কিনতে আসা ইসমাঈল নামের এক ব্যক্তি । তিনি বলেন, কিছুদিন আগেও যে তরমুজের দাম ছিল ১০০/১৫০ টাকা, রমজানের শুরু হতে না হতেই এখন সেই তরমুজ ২৫০/৩০০ টাকা দাম হাঁকানো হচ্ছে ।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, তরমুজ ব্যবসায়ীদের কোনো ধরনের তদারকি/ মনিটরিং না করায় ব্যবসায়ীরা নিজেদের মতো  দাম আদায় করে নিচ্ছেন। এতে আমাদের মতো নিম্ন আয়ের রোজাদার লোকেরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।
টেকনাফ বাস ষ্টেশন বনিক কল্যাণ সমিতির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যবসায়ী নেতা বলেন, বাস স্টেশন এলাকার ফুটপাত দখল করে গাড়ির কাউন্টার, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে। সুযোগ বুঝে যে যার মতো রোজদারী গ্রাহকদের কাছ থেকে তরমুজের দাম আদায় করে নিচ্ছেন। তবে এসব বিষয় দেখভালের মতো কারও কোন দায়িত্ব নেই ?
এ ব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ এরফানুল হক চৌধুরী বলেন, বাজার মনিটরিং এর জন্য একটি দল কাজ করে যাচ্ছে। প্রথম রোজার দিন আটটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে মূল্যতালিকা না টাঙ্গানোর অভিযোগে এক লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। মূল্যতালিকা না থাকলে যে কাউকে যেকোনো সময় আইনের আওতায় আনা হবে। কাউকে কোন ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না।

Share on your Facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News .....

© All rights reserved Samudrakantha © 2019

Site Customized By Shahi Kamran